ইউটিউবে কী ধরনের ভিডিও আপলোড করলে বেশি লাভ হবে?

Posted on

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি আপনারা সকলে ভালো আছেন। আপনাদেরকে আবারো আমাদের সাইটে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক স্বাগতম জানাই। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে ইউটিউবে কী ধরণের ভিডিও বানালে বেশি লাভ হবে সেই বিষয় টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করা যাক।

ইউটিউব বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি ভিডিও শেয়ারিং সাইট। এখানে যেকেউ নিজের একটি চ্যানেল খুলতে পারেন এবং সেই চ্যানেলে ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে পারেন। আবার প্রতিদিন প্রচুর পরিমাণে লোকেরা ইউটিউবে প্রবেশ করেন এবং সেই ভিডিও গুলো দেখে থাকেন।

আপনি যদি নতুন একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার কথা ভাবছেন তাহলে ইউটিউবে ভিডিও বানানোর আইডিয়া গুলোর বিষয়ে আপনার প্রথমেই জেনে রাখা দরকার।

কেননা বর্তমানে ইউটিউবে প্রচুর চ্যানেল রয়েছে যারা নিয়মিত তাদের ভিডিও ইউটিউবে পাবলিশ করছেন। এছাড়া লোকেরা তাদের নিজেদের বানানো ভিডিও আপলোড করার জন্য প্রতিদিন নতুন নতুন অনেক চ্যানেল তৈরি করছেন।

ফলে ইউটিউবে চ্যানেলের পরিমাণ অনেক ভেড়ে গিয়েছে এবং প্রতিদিন হাজার হাজার ভিডিও ইউটিউব প্লাটফর্মে পাবলিশ করা হচ্ছে। তাই আপনি যদি একটি ইউটিউব চ্যানেল প্রতিষ্ঠিত করতে চান তাহলে আপনাকে ইউটিউব কনটেন্ট আইডিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা অর্জন করতে হবে।

আপনারা অবশ্যই এ বিষয়ে জানেন যে, ইউটিউব চ্যানেল থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়? আমরা যদি সঠিকভাবে একটি ইউটিউব চ্যানেল প্রতিষ্ঠিত করতে পারি তাহলে আমরা সেখান থেকে কিছু পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারি।

আমরা মূলত টাকা আয় করার জন্য একটি ইউটিউব চ্যানেলে কাজ করে থাকি। আর একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার জন্য প্রথমে আপনাকে চ্যানেলের জন্য একটি সঠিক নিস বেছে নিতে হবে।

এতে আপনি বাছাই করা নিস এর উপরে আপনার চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে পারবেন। এরপর যখন লোকেরা আপনার ভিডিও দেখবে এবং আপনার চ্যানেল জনপ্রিয় হয়ে যাবে তখন আপনি ইউটিউব চ্যানেল থেকে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

নিম্নে আমার বলা নিস থেকে আপনি যদি যে কোন একটি বিষয়কে আপনার চ্যানেলের জন্য বেছে নিতে পারেন৷ এরপর কেবল সেই বিষয়ের সাথে জড়িত ভিডিও গুলো আপনার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করতে পারেন।

আমি যে ইউটিউব ভিডিও টপিক আইডিয়া গুলো আপনাদের দিতে চলেছি এগুলো বর্তমানে খুবই জনপ্রিয়। এই ধরনের ভিডিও গুলো লোকেরা পছন্দ করে থাকেন। আর আপনি যদি এই ইউটিউব নিস গুলোর যে কোন একটি নিস নিয়ে ভিডিও তৈরি করেন তাহলে আপনি খুব তাড়াতাড়ি সফল হতে পারেন।

কেননা একটি সঠিক নিস নিয়ে ভালোভাবে কাজ করলে ইউটিউবে সফল হওয়ার সম্ভাবনা প্রচুর রয়েছে। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক ইউটিউবে কি কি বিষয় নিয়ে কাজ করলে ভালো হবে।

Technology Related Video

বর্তমান যুগ প্রযুক্তির যুগ। এখন মানুষের দৈনন্দিন প্রায় সকল কাজে প্রযুক্তির ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তাই আপনি যদি ইউটিউবে প্রযুক্তি সম্পর্কিত ভিডিও আপলোড করতে পারেন তাহলে এক্ষেত্রে আপনার ইউটিউবে সফল হওয়ার সম্ভাবনা প্রচুর রয়েছে।

কেননা বর্তমানে লোকেরা প্রযুক্তিগত যেকোন সমস্যার সমাধান করার জন্য ইউটিউবে এর সমাধান খুজে থাকেন। Technology সম্পর্কিত অনেক বিষয় রয়েছে যেগুলোর উপর আপনি ভিডিও বানাতে পারেন।

Motivational বা শিক্ষামূলক ভিডিও

বর্তমানে মোটিভেশনাল ভিডিও গুলোর চাহিদা প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। কেননা এই ভিডিও গুলোর মাধ্যমে মানুষ motivate হতে পারেন যা তাদের জীবনে অনেক কাজে লাগে।

Motivational ভিডিওতে speaker এমন অনেক কথা বলেন যার দ্বারা শ্রোতারা উৎসাহিত হন এবং তাদের নিজ নিজ কাজে মনযোগ দেন। তাই আপনি যদি এই ধরনের ভিডিও বানাতে পারেন তাহলে আপনার ইউটিউব চ্যানেল প্রতিষ্ঠিত হতে খুব বেশি সময় লাগবে না।

তবে ভিডিওতে এমন কথা বলতে হবে যেগুলো থেকে দর্শকরা শিক্ষা নিয়ে তাদের বাস্তব জীবনে কাজে লাগাতে পারেন।

News channel

বিশাল সংখ্যক মানুষ ইউটিউবে প্রবেশ করেন খবর দেখার জন্য। দেশ বিদেশের বিভিন্ন খবর গুলো পাওয়ার জন্য অনেকেই ইউটিউবে চলে আসেন। তাই আপনি যদি খবর বা news বিষয়ক ভিডিও বানাতে পারেন তাহলে এক্ষেত্রে আপনার ভিডিওতে প্রচুর পরিমাণে views পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

তবে এক্ষেত্রে আপনাকে দেশের অথবা যেকোন বিষয়ের ভালো ভালো খবর সংগ্রহ করতে হবে এবং ভিডিওর মাধ্যমে তা প্রকাশ করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি চাইলে প্রতিদিন নতুন নতুন খবর নিয়ে ভিডিও বানাতে পারবেন এবং ভিডিওর জন্য নতুন টপিক খুজতে বেশি সমস্যা হবে না।

Vlog Channel

এখনকার সময়ে বলতে গেলে vlog channel গুলোর চাহিদা প্রচুর রয়েছে। কেননা অনেক লোকেরা vlog দেখতে অধিক পছন্দ করে থাকেন। Vlog সাধারণত travel নিয়ে করা হয়ে থাকে। যারা এই ধরণের ভিডিও তৈরি করেন তারা এক একটি ভিডিওতে এক এক জায়গায় বেড়াতে যান।

Journey চলাকালে ক্যামেরা দিয়ে সেই জায়গার ভিডিও ধারণ করেন এবং তাদের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করে থাকেন। এতে viewers রা সেই জায়গা সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারেন। সেই সাথে vlog video creator রা অনেকের কাছে জনপ্রিয় বা খুবই প্রিয় হয়ে ওঠেন।

Cartoon Video

আপনি অবশ্যই জানেন যে, বর্তমানে কার্টুনের কি পরিমাণ জনপ্রিয়তা রয়েছে। এখনকার new generation কার্টুন ভিডিও গুলো দেখতে অধিক পছন্দ করে থাকেন। কেননা অধিকাংশ কার্টুন ভিডিও অনেক মজার হয়ে থাকে, যার ফলে ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা সেগুলো দেখে অনেক আনন্দ পায়।

তাই আপনি চাইলে একটি কার্টুন ভিডিওর চ্যানেল বানাতে পারেন। তবে এজন্য প্রথমে আপনাকে cartoon video making শিখে নিতে হবে। আপনি কম্পিউটার অথবা মোবাইল ফোন দিয়েই এসব ভিডিও বানাতে পারবেন।

বর্তমানে এন্ড্রয়েড মোবাইলের এমন অনেক application রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি সহজেই কার্টুন ভিডিও বানানো শিখে নিতে পারেন। তাছাড়া ইউটিউবে সার্চ করে এর অনেক টিউটোরিয়াল আপনি দেখে নিতে পারেন।

Funny video বা বিনোদনমূলক ভিডিও

বলতে গেলে আজকাল বিনোদনমূলক ভিডিও গুলোর অন্যান্য সব ভিডিওর চেয়ে সবচেয়ে বেশি চাহিদা রয়েছে। কেননা লোকেরা বিনোদন পাওয়ার জন্য এসব ভিডিও দেখে থাকেন। এই ধরনের ভিডিওতে ভিউস অনেক বেশি পরিমাণে হয়ে থাকে এবং এগুলো তাড়াতাড়ি ভাইরাল হয়ে যায়।

ইউটিউবে বিনোদন মূলক ভিডিওর অনেক বড় বড় চ্যানেল রয়েছে। তাই আপনি এই ধরনের ভিডিও তৈরি করতে পারেন। তবে এই ভিডিওগুলো আপনি কেবল একাই বানাতে পারবেন না। এর জন্য আপনাকে আরো কয়েকজন বন্ধুকে সাথে নিতে হবে।

Gaming channel

গেমিং এখন অনেক জনপ্রিয় একটি ইউটিউব নিস হয়ে দাড়িয়েছে। এই নিস এর বর্তমানে প্রতিযোগিতা অনেক বেশি। আপনি ইউটিউবে একটি গেমিং চ্যানেল খুলে কাজ করতে পারেন। ইউটিউবে Gaming এর একটি আলাদা ফিচারস রয়েছে যা আপনি অবশ্যই জানেন।

কেবল ইউটিউবে নয়, বর্তমানে অনেকেই ফেসবুক পেজে লাইভ গেমিং এর ভিডিও তৈরি করছেন।

আরো পড়ুনঃ ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় 2022

Educational video বা অনলাইন ক্লাস

আপনার যদি যেকোন একটি বিষয়ে ভালো জ্ঞান রয়েছে বা আপনি যদি একজন শিক্ষক হয়ে থাকেন তাহলে আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেলে অনলাইন ক্লাস করাতে পারেন। ধরুন, যেকোন একটি subject যেমন, বাংলা, ইংরেজি, গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান ইত্যাদি।

বর্তমানে স্টুডেন্টরা তাদের পাঠ্য বইয়ের কোন একটি বিষয়ে সমস্যা থাকলে সেটি ইউটিউবে সার্চ করে সমাধান খুজে থাকেন। তাই আপনি একজন online tutor হিসেবে ইউটিউবে কাজ করতে পারেন এবং চ্যানেলে অনলাইন ক্লাস সম্পর্কিত ভিডিও আপলোড করতে পারেন।

তো প্রিয় বন্ধুরা আশা করছি আপনাদের কাছে আজকের এই পোস্ট টি ভালো লেগেছে। যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কিন্তু কমেন্ট করে জানাবেন। এবং আমাদের সাইটে এরকম আরো অনেক হেল্পফুল পোস্ট রয়েছে সেগুলো পড়তে চাইলে আমাদের ShopTips24.CoM সাইটটি একবার ভিজিট করুন। আর আজকের মতো এখানেই বিদায়, ভালো থাকবেন সুস্থ্য থাকবেন।

The post ইউটিউবে কী ধরনের ভিডিও আপলোড করলে বেশি লাভ হবে? appeared first on Trickbd.com.

Source:

One thought on “ইউটিউবে কী ধরনের ভিডিও আপলোড করলে বেশি লাভ হবে?

Leave a Reply

Your email address will not be published.