গেমিং সম্পর্কে সম্পূর্ণ অজানা ইতিহাস জানুন। আসা করি সকলে দেখবেন। দ্বিতীয় পর্ব।

Posted on

আমি মুরাদ আপনাদের মাঝে আবার হাজির হলাম দ্বিতীয় পর্ব নিয়ে।

পোষ্টটি সম্পূর্ন নিজের ভাষায় লিখা ভুল ত্রুটির হলে ক্ষমা করবেন

আগের পোষ্টে আমারা গেম কিভাবে আসলো তার শুরুর ইতিহাস নিয়ে আলোচনা করেছি চাইলে আগের পোষ্ট টি দেখে আসতে পারেন।

গেমিং সম্পর্কে সম্পূর্ণ অজানা ইতিহাস জানুন। পোষ্টটি প্রত্যেকের দেখা দরকার । প্রথম পর্ব।

বর্তমান তিন ধরনের গেম খেলে আমরা অভ্যস্ত।

১। কম্পিউটার গেমস।

২। স্মাটফোন গেমস।

৩।কনসোল গেমস।

এখন আসা যাক কনসোল গেমস কি?

কনসোল গেমস হচ্ছে এমন গেমস যা কিছু বিশেষ ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রে খেলা হয়ে থাকে।
কনসোল গেমস খেলে অনেক মজার।

কনসোল গেমের আসোল স্বাদ পেতে আপনাকে 3D গ্লাস ব্যবহার করতে হবে তাহলে আপনা গেম খেলার অভিজ্ঞতা বদলে যাবে।

গেমিং এর জন্য গেম খেলা জয়েস্টিক, কিবোর্ড, গেমিং মাউস, 3D গ্লাস, গেমিং মনিটর, গেমিং ডিভাইস, এসব যন্ত্রকে গেম কনসোল বলা হয়ে থাকে।
বর্তমান এর কিছু জনপ্রিয় গেমিং কনসোল এর নাম XBox, Playstation, Nintendo, Wii ইত্যাদি।

তো আপনি যদি একজন গেম লাভার হন তাহলে একবার কনসোল গেম ট্রাই করে দেখতে পারেন।
গেমিং এর আসোল মজা কনসোল গেম এর মাধ্যমে পাবেন।

তবুও এখন এটি ওতটা জনপ্রিয় না কারন মানুষ এখন সবকিছু সস্তা চাই একসাথে কম ঝামেলায় সব সেরে ফেলতে চাই এর কারনে কনসোল এর পরে মানুষ পারসোনাল কম্পিউটার গেমের দিবে বেশি ঝুঁকে পড়ে।
পরবর্তী তে স্মাটফোন আসাই স্মার্টফোন গেমের দিকে ঝুঁকে পড়ে।

পারসোনাল কম্পিউটার গেমস কি?

যেসব গেমস কম্পিউটারে খেলা হয়ে থাকে তাকে কম্পিউটার গেম্স বলে।
বর্তমানে ডেস্কটপ কম্পিউটারে ল্যাপটপ গেমস খেলা, বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।
কম্পিউটার গেম সফটওয়্যার হিসেবে থাকে। এটি ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করে কিনে খেলা যায় গেমসের বিভিন্ন সিডি বা ডিক্স পাওয়া যায়।

কম্পিউটার এর জন্য বিভিন্ন অনলাইন গেমস রয়েছে।

বর্তমান এ হাই গ্রাফিক্স গেম কেবল মাত্র পারসোনাল কম্পিউটার আর কনসোল এর উপর আসে।

আপনি যদি হাই গ্রাফিক্স গেম খেলতে চান তাহলে আপনাকে কনসোল বা কম্পিউটার বেছে নিতে হবে।

কনসোল এ গেমর গ্রাফিক্স ভালো পেতে
আপনি বাহিরে থেকে পোটেবল গ্রাফিক্স কাড লাগিয়ে নিতে পারবেন
যার ফলে আপনি ভালো মানের গ্রাফিক্স দেখতে পারবেন।

কম্পিউটার এ গেমিং হচ্ছে সবচেয়ে ভালো আপনার জন্য ভালো চয়েস।

পিসি আর কনসোল এর কিছু জনপ্রিয় গেম
Control 2019, Destiny 2 2017, The Elder Scrolls V: Skyrim 2011, Resident Evil 2 2019, Dota 2 2013, Monster Hunter: World 2018, Forza Horizon 4 2018, Sekiro: Shadows Die Twice 2019, Bloodborne 2015, League of Legends 2009, Alien: Isolation 2014, Destiny 2014, Fortnite Battle Royale 2017, Final Fantasy XIV 2013, Cuphead 2017, Guild Wars 2 2012, Resident Evil 2 1998, BioShock 2007, Destiny, Half-Life 2 2004, EVE Online 2003, Metal Gear, Time sink, Apex Legends 2019, Hearthstone 2014, Civilization VI 2016, Dishonored, Assassin’s Creed Odyssey 2018, World of Warships
2015, The Elder Scrolls Online 2014, Divinity: Original Sin II 2017, Rocket League 2015, Life Is Strange, Vikings: War of Clans 2015, Sea of Thieves 2018, Final Fantasy XIV: Shadowbringers 2019, Dark Souls III 2016, World of Warcraft: Battle for Azeroth 2018, Star Wars Jedi: Fallen Order 2019, Counter-Strike: Global Offensive 2012, The Phantom Pain 2015, Past Cure 2018।

স্মাটফোন গেমস কি?

যেসব গেমস আমরা মোবাইল এ খেলি সেগুলো স্মাটফোন গেমস
বর্তমান এ মোবাইল ব্যবহার কারির সংখ্যা সবচেয়ে বেশি এই কারনে।
এখন মোবাইল এ অনলাইন গেমিং খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

একটু বিনোদন এর জন্য বা সময় কাটানোর জন্য সবাই এখন মোবাইল গেমকে বেছে নিচ্ছে।

১৯৯৪ সর্বপ্রথম মোবাইল গেম ছিল নাম ছিলো Tetris যেটি 
Hagenuk MT-2000 ফোনে খেলা যেতো।
তারপরে নোকিয়া Nokia 6610 ফোনে Snake গেম নিয়ে আসে যেটি অনেক জনপ্রিয়তা লাভ করে।
স্মার্টফোনের আবিষ্কারের পর মোবাইল গেমের জনপ্রিয়তা কম্পিউটার এর চেয়ে বহুগুনে বেড়ে যায়।

বর্তমানে স্মাটফোন গেম সবচেয়ে জনপ্রিয় প্লাটফর্ম।

শুরুতে স্মার্ট ফোন গেম অতটা উন্নত ছিলোনা কিন্তু ধিরে ধিরে এটির গ্রাফিক্স বদলে যাই
বিভিন্ন কম্পিউটার গেম তৈরি করা কোম্পানি মোবাইল এর জন্য গেম বানাতে শুরু করে।
এবং মোবাইল কম্পিউটার এর মানের গেম নিয়ে আসে।

মোবাইল জন্য বিভিন্ন ভালো ভালো অপারেটিং সিস্টেম আসতে শুরু করে
প্রথম দিকের গেম গুলো নকিয়া নিজের প্রভাইট করতো

তার পরে আসে জাভা গেম মোবাইল এ জাভা গেম অনেক জনপ্রিয় ছিলো
তারপর।

তারপর সনি মোবাইল নকিয়া মোটোরওলা মিলে
সিম্বিয়ান অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে আসে যেটি জাভার যেয়ে বেশি শক্তিশালি ছিলো।

কিন্তু সবাইকে এক ঝটকায় পেছনে ফেলে
Apple তাদের I phone এ IOS অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে হাজির হলো
যাতে কিনা প্রাই কম্পিউটার এর কাছাকাছি পর্যায়ে পারফরম্যান্স দিতো।
তারা গেমিং যুগ পাল্টে দিলো মোবাইল ভালো মানের গেম আনতে শুরু করলো।

এদিকে গুগোল তাদের Android নিয়ে হাজির যেটি কিনা ছিলো অনেক কম দামি এর কারনে মানুষ Android এর দিকে ঝুকে পড়লো।

এদিকে Sony Viao Microsoft মিলে মিনি কম্পিউটার নিয়ে হাজির হলো এটি
যেটির সাইজ অনেক ছোট ছিলো।

নকিয়ার মতো বড়ো একটা কোম্পানি পিছিয়ে যাচ্ছিলো তাদের অপারেটিং সিস্টেম এর কারনে
তাইরা Microsoft এর সাথে চুক্তি বন্ধ হয়ে Nokia Windows ফোন নিয়ে হাজির হলো কিন্তু তা তেমন একটা সাড়া ফেলতে পারেনি
মানুষ Android ফোন বেশি পছন্দ করতে সুরু করলো।

এবং বর্তমান টপ অপারেটিং সিস্টেম এর মধ্যে রয়েছে
Android /IOS
তাই এখন গেমিং কোম্পানি গুলো এই দুই অপারেটিং সিস্টেম এর ওপর বেস করে গেম তৈরি করে আসছে।

এখন আমরা কম্পিউটার এর মানের গেমগুলো মোবাইল এ খেলতে পারি।


মোস্তফা ভাইস সিটি গেমস এর কথা কার মনে আছে যেই গেম গুলো আগে সুধু কম্পিউটার এ খেলা যেতো ।
কিন্তু এই গেম গুলো এখন মোবাইল এ খেলা সম্ভব।

এখন লক্ষ করলে দেখা যাবে যে কম্পিউটার গেমস এর জনপ্রিয়তা কমে যাওয়ার কারনে কম্পিউটার গেমস ডেভেলপমেন্ট ১ ধাপ পিছিয়ে যাবে।

সব কোম্পানি এখন স্মার্ট ফোনের দিকে ফোকাস করছে।

আর স্মাট ফোনের জনপ্রিয় গেম গুলো হচ্ছে Clash Of Clans, Clash Royale, Pubg Mobile, Free Fire, Alto’s Odyssey 2018, Alto’s Adventure 2015, Monument Valley 2014, The Room 2012, Shadowgun Legends 2018, Threes 2014, Real Racing 3 2013, Fire Emblem Heroe 2017, The Room: Old Sins 2018, Kingdom Rush 2011, Riptide GP: Renegade 2016, Asphalt 8: Airborne 2013, The Battle of Polytopia 2016, 80 Days 2014, Plague Inc. 2012, Reigns: Her Majesty 2017, Superbrothers: Sword & Sworcery EP 2011, Crashlands 2016, Super Mario Run 2016, Xenowerk 2015, Animal Crossing: Pocket Camp 2017, Final Fantasy Brave Exvius 2015, Ingress 2012, Limbo 2010, Life Is Strange 2015, Dr. Mario World 2019, The Witness 2016, The Banner Saga 2014, Pocket City, Rayman Jungle Run, Final Fantasy XV : Pocket Edition 2018, Tropico 2001, Out There 2014,
Final Fantasy Tactics: The War of the Lions 2007, Angry Birds 2 2015, Farm Punks, Plague Inc: Evolved 2015, Dragalia Lost 2018, VVVVVV 2010, Final Fantasy XV: A New Empire 2017, Card Thief, Yu-Gi-Oh! Duel Links 2016, N.O.V.A. 3 2012, Secret of Mana 1993, Knights of Pen & Paper 2012, Machinarium 2009, You Must Build a Boat 2015, Words with Friends 2009

আজকে এই পযন্ত পরের পর্বে আবার হাজির হচ্ছি।
আমার পোস্ট টি যদি একটুও ভালো লেগে থাকে প্লিজ আমাকে একটু সাপোর্ট দিবেন আমার একটা ফেসবুক পেজ আছে প্লিজ লাইক করবেন আর ইউটিউব চ্যানেল টা সাবসক্রাইবার করবেন।

Facebook page

Facebook page Like plz

YouTube Channel

Youtube channel

ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

The post গেমিং সম্পর্কে সম্পূর্ণ অজানা ইতিহাস জানুন। আসা করি সকলে দেখবেন। দ্বিতীয় পর্ব। appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *