প্রফেশনাল ভাবে ফটো এডিট করুন সেরা অ্যাপ্লিকেশনে? ফটো এডিট করার সেরা অ্যাপ্লিকেশন?

Posted on

আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু। সম্মানিত পাঠক গনেরা আজকে আমরা ফটো এডিটিং করার সেরা একটি অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে জানব।সত্যিকার অর্থে এই অ্যাপ্লিকেশনটির নাম এখনো পর্যন্ত শুনিনি খুব কম লোক রয়েছে।বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় মধ্য এই অ্যাপ্লিকেশনটি ফটো এডিটের জন্য সেরা। আপনি যদি ইউটিউব, ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম বা যেকোনো মিডিয়াতে ফটো এডিট করে ছাড়তে চান বা আপলোড করতে চান।
তাহলে এই অ্যাপ্লিকেশনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে আপনার জন্য। আপনি চাইলে এই অ্যাপ্লিকেশন দ্বারা প্রফেশনাল ভাবে ফটো এডিট করতে পারবেন কোন সমস্যা ছাড়াই। এই অ্যাপ্লিকেশনে প্রচুর পরিমাণে এডিটিং অপশন রয়েছে।আপনার প্রয়োজন বা চাহিদা অনুযায়ী সকল এডিটিং অপশন পাবেন এই অ্যাপ্লিকেশনে।তো চলুন বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক এই অ্যাপ্লিকেশনটির ব্যাপারে।

অ্যাপ্লিকেশনটির নাম কি কিভাবে ডাউনলোড করব?

*অ্যাপ্লিকেশনটি খুবই জনপ্রিয় হওয়ার কারণে আপনি যেকোনো জায়গায় সার্চ দিলে পেয়ে যাবে। আপনি চাইলে সরাসরি গুগল থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন। অ্যাপ্লিকেশন টির নাম হল pixel lab
হ্যাঁ পিক্সেল ল্যাব অ্যাপ্লিকেশনটির নাম।

*আপনি চাইলে এই অ্যাপ্লিকেশনটি প্লে স্টোরেও পেয়ে যাবেন। প্লে স্টোরে পিক্সেলাব সার্চ করলে এই অ্যাপ্লিকেশনটি সর্বপ্রথমে আসবে। অ্যাপ্লিকেশনটি চেনার জন্য নিচের ফটোটা লক্ষ করুন।

*আশাকরি উপরের ফটো দেখে আপনি খুব সহজেই চিনতে পারবেন অরিজিনাল অ্যাপ্লিকেশনটি। সর্ব প্রথমে আপনি অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করে নিন, ইনস্টল হওয়ার পর এ অ্যাপ্লিকেশনটি ওপেন করুন। ওপেন করলেই দেখতে পাবেন,,, ফ্রিতে অনেকগুলো ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ দেওয়া রয়েছে। আপনি চাইলে এই ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ ব্যবহার করতে পারেন।

* তাছাড়া আপনি যদি চান আপনার গ্যালারিতে বা ফাইল ম্যানেজার থেকে ফটো এডিট করতে তাও পারবেন। সরাসরি ফাইল ম্যানেজার থেকে ফটো নিয়ে আসার জন্য, সর্বপ্রথমে ক্লাস আইকনে ক্লিক করতে হবে। নিচের ফটো টি দেখলে বুঝতে পারবেন কোনটা প্লাস আইকন।

*ওপরের চিহ্নিত অংশটি প্লাস আইকন। ক্লাস আইকনে ক্লিক করলেই আপনাদের সামনে কিছু অপশন শো করবে। অপশন গুলোর ভিতর ফ্রম গ্যালারি অপশনটিতে ক্লিক করুন। বোঝার জন্য নিজের ফটোটি লক্ষ করতে পারেন।

*চিহ্নিত অংশে ক্লিক করলে সরাসরি আপনার ফাইল ম্যানেজার এ নিয়ে যাবে। এবার আপনার ইচ্ছামত ফটো সিলেক্ট করে ফটো এডিট করতে পারেন।

*এই অ্যাপ্লিকেশনে এডিট করার জন্য 30 থেকে 40 রকম এডিটর রয়েছে। আপনার চাহিদা এবং ইচ্ছা অনুযায়ী সকল এডিট অপশন অ্যাপ্লিকেশন টি তে রয়েছে।

*যাইহোক ফটোটি এডিট করার পর কিভাবে সেভ করবেন?

*আপনার ফটোটি এডিট কমপ্লিট হয়ে গেলে সেটা নিশ্চয়ই সংরক্ষণ করার প্রয়োজন হবে। আপনি চাইলে এই অ্যাপ্লিকেশন থেকে খুব সহজেই আপনার গ্যালারিতে অথবা ফাইল ম্যানেজার এ সেভ করতে পারেন। সেভ করার জন্য নিজের ফটো চিহ্নিত করার অংশে ক্লিক করুন।

*উপরের ফটোতে চিহ্নিত করা অংশে ক্লিক করলেই নিজের ফটোর মত দেখতে পারবেন। এই ফটোর চিহ্নিত করা অংশ আবার ক্লিক করুন।

*উপরের ফটো চিহ্নিত অংশে ক্লিক করলেই আপনাদের সামনে নিজের ফটোর মত পেজ ওপেন হবে।

*আপনার এডিট কৃত ফটোটা সেভ করার জন্য উপরের চিহ্নিত করা অংশে ক্লিক করো। ব্যাস আপনার ফটোটি এডিট কমপ্লিট এবং সেভ করাও । আশা করি বোঝাতে পেরেছি কিভাবে এডিট করবেন এবং সেভ করবেন। কোন প্রকার সমস্যা হলে আমাকে কমেন্ট এর মাধ্যমে বলবেন আমি সাহায্য করব ইনশাল্লাহ।

*আর আপনারা যদি চান কিভাবে প্রফেশনাল ভাবে ফটো এডিট করবো? এই অ্যাপ্লিকেশন দ্বারা তাহলে আমাকে বলবেন। আমি আরেকটি আর্টিকেলে বিস্তারিত ভাবে একটি প্রফেশনাল ফটো এডিট করা শিখিয়ে দিব। যদি আপনাদের প্রয়োজন হয় তাহলে বলবেন শুধু।

পরিশেষে বন্ধুরা,কেমন লাগলো আমার আজকের আর্টিকেলটি জানাতে ভুলবেন না কমেন্ট এর মাধ্যমে? কোন কিছু জানার থাকলে অবশ্যই আমাকে কমেন্ট করবেন। আমি রিপ্লে দেওয়ার চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ। সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন এই কামনা করে বিদায় নিচ্ছি,,, আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু।

The post প্রফেশনাল ভাবে ফটো এডিট করুন সেরা অ্যাপ্লিকেশনে? ফটো এডিট করার সেরা অ্যাপ্লিকেশন? appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *