সৎ ব্যবহার

Posted on

প্রিথিবী ও আখেরাতে মানুষের সবচেয়ে ভালো কাজ হচ্চে সদ্ব্যবহার। সৎ ব্যাবহার মানুষে একটি বড় গুন। সদ্ব্যবহার দুই ভাগে বিভক্ত । প্রথমত : পার্থিব । পার্থিব হচ্চে দুনিয়ায় ভালো ব্যাবহার । আর দ্বিতীয়ত হচ্ছে পারলৌকিক বা আখিরাত। এখন আমরা এই দু প্রকারের আলোচনা করবো।

1/ পার্থাব : একজন মানুষ অন্য মানুষের সাথে বন্দন সমুহ যথা, দয়া করা , তাকে সহমর্মাতার সঙ্গে রক্ষা করে রাখা।

2/ পারলৌকিক : পরকালের সৎ ব্যাবহার হচ্চে,মানীষ আল্লঅহর প্রতি পুর্ন ইমান ও আকিদায় অবিচল থাকবে, তার কার উপর অবিচল থেকে পুর্ন ইখলাসের সাথে তার ইবাদত করতে হবে। আমাদের রসুল (স:) ইহসান বা উত্তম আচরনের বর্ণনা করতে গিয়ে ইরসাদ করেন , “আল্লহর ইবাদত এমন ভাবে কর , যেন তুমি তাকে দেখছ। আর দেখতে সক্ষম না হলে এ দৃষ্টি কর যে , তিনি তোমাকে দেখছেন।” আসলে সৎ ব্যবহারের অনেক দিক আছে। যেমন আল্লাহ তাআলা ও মানুষের মধ্যেকার প্রতিশ্রুতি ও চুক্তি রক্ষা করা। যেমন আল্লাহ তায়ালা সুরা মায়েদার 1 নাম্বার আয়াতে ইরশাদ করেন “ওহে যারা ইমান এনেছ চুক্তি পূর্ণ কর”। আমাদের অভাদিদেরকে দান করতে হবে। এ বিষয়েও আল্লাহ তায়ালা বলেন ” যদি তাদেরকে দান করো তোমাদের জন্য তা কল্যান কর , যদি তোমরা বিষয়টি সম্পর্কে ঙ্গান রাখতে। (বাকারা 280) । আমাদের কে এতিমতেরকে অনেক আদর যত্ন করতে হবে। কিন্তু তারাদের সম্পদের ধারে কাছেও যাওয়া যাবে না। এবিষয়ে আল্লাহ সূরা ইসরা 34 নাম্বারে ইরশাদ করেন :”তোমরা এতিমতের মালের কাছেও যেওনা, একমাত্র তার কল্যান আকাঙ্ক্ষা ছাড়া ; সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির যৌবনে পদার্পন না করা পর্যন্ত”। আমাদের কে পরিমাপ করার সময় পরিমাপ ঠিক রাখতে হবে । কেনা এ বিষয়ে আল্লাহ তায়ালা সূরা শোয়ারা 181 থেকে 183 আয়াত পরর্যন্ত ইরশাদ করেন ” মাপে পর্ণু মাত্রায় দেবে,যারা মাপের ঘাটতি করে তোমরা তাদের অন্তর্ভুক্ত হলো না এবং ওজন করে সঠিক দাড়িপাল্লায়। এর তাদের প্রাপ্য বস্তু কম দিবে না এবং পৃথিবীতে বিপর্যয় ঘটবে না। জুলুম ও কৃপণতা পরিহার করা ও স্বভাবের মৌলিক সমূহের মধ্যে 1 টি। রাসূলুল্লাহর সালাত সালাম এ বিষয় ইরশাদ করেন যে, জুলুম কে ভয় করো। কেননা জুলুম-অত্যাচার পরকালের অন্ধকার কারন হবে। কৃপণতা থেকে মুক্তি থাকো কেননা অতীত যুগের কৃপণতা কারণে বহু জাতি ধ্বংস হয়ে গেছে। নবীনচন্দ্র সেনের আরো ইরশাদ করেন যে, ধারণা থেকে তোমরা মুক্ত থাকবে কেননা ধারণা মিথ্যা কথা বলতে প্ররোচিত করে অন্যের গোপন বিষয় জানতে চেওনা,, দোষ ত্রুটি খুঁজে বের করো না, বিবাদ করো না ও হিংসা বিদ্বেষ ছলনা ও শত্রুতায় লিপ্ত করিও না ও অন্যের পিছু নিও না। এখানে অন্যের পিসি বলতে কারো পেছনে লেগে থাকা বা তার সম্পর্কে জানতে চাওয়া বোঝানো হয়েছে।এক মুসলমান অপর মুসলমানের ভাই ভাই। তাহলে এক ভাই অন্য ভাইকে কোনো জুলুম করতে পারেনা এবং অপরাধ করতে পারে না। এবং তাকে অপমানিত করতে পারি না যা মন থেকে তুচ্ছ করতে পারেনা। বড়দের সম্মান করতে হবে এবং ছোটদের স্নেহ করতে হবে। এ বিষয়ে রাসুল সাঃ করা জোর দিয়ে বলেন সে আমার অন্তর্ভুক্ত নয় যে ছোটদের স্নেহ করে না আর বড়দের সম্মান করে না।।।।।।

তাহলে আজ এই পর্যন্তই দেখা হবে আরেকদিন। ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন ট্রিকবিডি এর সাথেই থাকুন।

The post সৎ ব্যবহার appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *