২০২২ এ এসে ৩ তিনটি গেমিং ডিভাইস |১৫ থেকে ২০ হাজার টাকার মাঝে | বাংলা রিভিউ।

Posted on

আসসালামু আলাইকুম,
২০২২ সালের ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকার ভিতরে সেরা তিনটা গেমিং স্মার্টফোন সম্পর্কে জানাবো যে এই গেমিং স্মার্টফোনগুলো দ্বারা আপনারা শুধুমাত্র গেম ই খেলতে পারবেন না এছাড়াও সুন্দর সুন্দর ফটো তুলতে পারবেন আর ব্যাটারি ব্যাকআপ এর ক্ষেত্রে এই ফোন গুলো একদম টপ লেভেলের হবে।

আমাদের এই তালিকায় ১৬ হাজার টাকার ভিতরে বর্তমানে অফিশিয়াল একটি স্মার্টফোন কে আমি তিন নাম্বার অবস্থানে রেখেছি।


১। Infinix hot 11s
এই ফোনটিতে রয়েছে ৬ জিবি রেম এর পাশাপাশি ১২৮ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি আর এইখানে ডিসপ্লেতে আপনারা ৯০HZ রিফ্রেশ রেট পেয়ে যাবেন অর্থাৎ গেমিং এর ক্ষেত্রে এর রিফ্রেশ রেট অনেক বেশি কাজে আসবে যে কোন গেমার এর কাছে।

৬.৭৮ ইঞ্চি এর বিশাল আকৃতির ফুল এইচডি রেজুলেশনের ডিসপ্লে থাকছে হট ইলেভেন এস স্মার্টফোনে।

আর এই ফোনটা তে গেমিং জন্য ইউজ করা হয়েছে মিডিয়াটেক এর G88 Soc যে চিপসেট টির মধ্যে মালির G52 mc2 জিপিইউ টি রয়েছে।

তো যারা কিনা পাবজি গেম টি ৪০ এফপিএস এ খেলতে চান, এবং ফ্রী ফায়ার গেমটি আল্ট্রা সেটিং-এ ফেলতে চান।
তাদের জন্যই মূলত স্পেশালি তৈরি করা হয়েছে এই স্মার্টফোনটি।

এই ফোনটিতে জায়রা সেন্সরটি পাওয়া যাবে, যদিও জায়রা সেন্সরটি ততটা উন্নত কোয়ালিটির না।
তাই পাবজি গেম খেলার সময় আপনারা সেনসিটিভিটি টা একটু ভালোভাবে চেক করে নিবেন।

এই ফোনটার বিশেষত্ব গেমিং হলেও এখানে ক্যামেরা সেকশনে আপনারা ৫০ মেগা পিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ ফোনটির পিছনে পেয়ে যাবেন।
যেটা দ্বারা কিনা টুকে রেজুলেশনের সর্বোচ্চ ভিডিও রেকর্ডিং করা পসিবল।

৮ মেগা পিক্সেলের সেলফি থাকছে, ফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে।

এছাড়াও গেম খেলতে খেলতে ফোনটির ব্যাটারি যাতে দ্রুত শেষ না হয়ে যায়, তাই ৫,০০০ মিলি এম্পিয়ারের ব্যাটারি পাওয়া যাবে ফোনটিকে পাওয়ার ব্যাকআপ দেয়ার জন্য।

তবে চার্জিং স্পিড টা মোটামুটি কিছুটা স্লো মনে হয়েছে,
ইত্যাদি সকল ফিচার এর পাশাপাশি, ডেডিকেটেড সিম স্লট পাওয়া যাবে এই ফোনটির মধ্যে।

তো বর্তমানে ৬ জিবি রেম এর সাথে আশা এই ফোনটা অফিশিয়াল ভাবে ১৫,০০০ টাকার মধ্যেই কিনতে পারবেন।


২। Poco M2 pro
অনেকে হয়তো বলবেন রেডমি নোট টেন লাইট স্মার্ট ফোন টাকে এই তালিকায় রাখা যেত কিন্তু, সেই ফোনটির ৬ গিগাবাইট র্যাম এর ভেরিয়েন্ট টা বাংলাদেশ পাওয়াই যায় না বললে চলে।

পোকো এম২ প্র স্মার্টফোন টি তে রয়েছে, ৬ গিগাবাইট র্যাম যেটা কিনা গেমিং এ আপনাকে কিছুটা হলেও সাহায্য করবে।

৬.৬৭ ইঞ্চি এর ফুল এইচডি রেজুলেশনের পাঞ্চ হোল কাট আউট এর ডিসপ্লে থাকছে এই স্মার্টফোনে।
আর গেম খেলার জন্য এই ফোনটার ডিসপ্লে খুবই খুবই ভালো বলা চলে,

Qualcomm Snapdragon 720G  প্রসেসর টি ব্যবহার করা হয়েছে এই ফোনের মধ্যে, যেখানে কিনা অ্যাড্রিনো ৬১৮ জিপিও টা থাকছে।

তাই পাবজি এবং ফ্রী ফায়ার এর মত গেম গুলো আপনারা সর্বোচ্চ সেটিংসে খেলতে পারবেন।

তো এই সকল সুবিধার সাথে পাচ্ছেন ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এর সুবিধাও।

আরও থাকছে ৪৮ মেগাপিক্সেল এর কোয়াট ক্যামেরা সেটআপ থাকছে এই ফোনটির পিছনে, যেখানে কিনা ফাইভ মেগাপিক্সেল এর মাইক্রো ক্যামেরা শুটার, এবং রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল এর আল্ট্রা ওয়াইড ক্যামেরা।

সেইসাথে ১৬ মেগা পিক্সাল এর খুবই ভালো মানের একটি সেলফি ক্যামেরা পাওয়া যাবে ফোনটির সামনের দিকে।

সাইট মাউনটেইন্স ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার, ৫,০০০ মিলি এম্পিয়ার এর ব্যাটারি, ৩৩ ওয়ার্ড এর চার্জিং  স্পিড এর সঙ্গে আই আর ব্লাস্টার এর মত সেন্সর পাবেন এই স্মার্টফোনে।

এই ফোনটার যাইরা সেন্সর টা খুব ভালো ভাবে কাজ করে অর্থাৎ খুবই উন্নত কোয়ালিটির জায়রা সেন্সর কে ইউজ করা হয়েছে পোকো এম২ প্র স্মার্টফোনের মধ্যে।

তাই এজে গেমিং ডিভাইস অথবা অলরাউন্ডার ফোন হিসেবে, পোকো এম ২প্র স্মার্টফোনটা সাজেস্ট করলাম।
আর এই ফোনটি আপনারা আনঅফিসিয়াল ভাবে বর্তমানে ১৭ হাজার টাকার মধ্যেই পারচেজ করতে পারেন।


১। Realme Narzo 30
বর্তমানে এই ডিভাইসটি অফিশিয়াল ভাবে বাংলাদেশের মার্কেটগুলোতে পাওয়া যাচ্ছে, এবং এখানে ৬ গিগাবাইট র্যাম এর পাশাপাশি ১২৮ জিবি ইন্টারনাল মেমরি পেয়ে যাবেন।

এই ডিভাইসটির সবচাইতে ভালো ব্যাপার হচ্ছে গিয়ে ডিসপ্লেতে ৯০ হার্স রিফ্রেশ রেট এর পাশাপাশি ১২৮ হার্স টাচ স্যাম্পল রেট ইউজ করেছে রিয়েল মি।
যেটা কিনা গেমিং এর ক্ষেত্রে সবার ই কাজে আসবে বলে মনে করি।

৬.৫ ইঞ্চি এর ফুল এইচডি প্লাস রেজুলেশনের ডিসপ্লে থাকছে ফোনটির মধ্যে।

মিডিয়াটেক g95 প্রসেসর টিকে ব্যবহার করা হয়েছে, ফোনটির গেমিং এসওসি হিসেবে।
থাকছে মালি-জি৭৬ mc4 জিপিও ব্যবহার করা হয়েছে।
তো এই কারণগুলোতে গেমিং এর ক্ষেত্রে খুবই ভালো একটা রেসপন্স পাওয়া যাবে।

যেকোনো হাই গ্রাফিক্সের গেম গুলো খুবই ইজিলি প্লে করা যাবে এই ফোনটির মধ্যে।

ফোনটির পিছনে থাকছে ফর্টি এইট মেগাপিক্সেল এর ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ, আর ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে থাকছে সিক্সটিন মেগা পিক্সাল এর একটি সেলফি ক্যামেরা।
ফোরকে তে ভিডিও রেকর্ডিং করা অথবা স্লোমো ভিডিও রেকর্ডিং করা সহ বেশ কিছু ইউনিক টাইপের ফিচার থাকছে এই ফোনটির মধ্যে।

আর এখানে ব্যবহার করা হয়েছে 5000 মিলি এম্পিয়ার এর দুর্দান্ত ব্যাটারি, আরও থাকছে সাথে থার্টি ওয়াট এর ফাস্ট চার্জিং সুবিধা।
ফোনটা ফুল চার্জ করা যাবে মাত্র 1 ঘন্টা 10 মিনিটে।

এ ছাড়া থাকছে ফোনটির মধ্যে ৬ জিবি রেম এর পাশাপাশি ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল মেমোরি, ডেডিকেটেড সিম স্লট এর মাধ্যমে দুইটি সিমের পাশাপাশি একটি এইচডি কার্ড ব্যবহার করা যাবে।
এছাড়াও থাকছে সেকেন্ডারি নয়েজ ক্যালকুলেশন মাইক্রোফোন,

ফোনটি বর্তমানে হাজার ১৯ থেকে ২০ হাজার টাকার মধ্যে বাংলাদেশের যে কোন স্মার্ট ফোন মার্কেটে পেয়ে যাবেন।


LG V40 Thinq স্মার্টফোনটি বাংলাদেশে এখন পাওয়া যাচ্ছে ৪-৬৪ জিবি ভেরিয়েন্ট এ মাত্র ৫ হাজার ৭৯৯ টাকায় এটিও দেখতে পারেন কন্টাক্ট নাম্বার- 01746742991

আজকের মত এ পর্যন্তই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আল্লাহ হাফেজ ❤

The post ২০২২ এ এসে ৩ তিনটি গেমিং ডিভাইস |১৫ থেকে ২০ হাজার টাকার মাঝে | বাংলা রিভিউ। appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published.