Chrome/Firefox এর থেকে ভালো প্রচুর ফিচারে ভরা ১০টি ওয়েব ব্রাউজার। Top 10 Best Web Browsers Better Than Chrome/Firefox

Posted on

আসসালামু আলাইকুম,
কেমন আছেন সবাই? আশা করি মহান আল্লাহ তায়ালার রহমতে আলহামদুলিল্লাহ ভালোই আছেন। এই পোস্ট দেখে অনেকেই বলতে পারেন শুধু শুধু সময় নষ্ট করে পোস্টটা লিখেছি বা এই পোস্টের কারন অনেক নেগেটিভ কমেন্টও পেতে পারি। কিন্তু আমি বলবো, একটু মনোযোগ দিয়ে পোস্টটি পড়ুন। কারন এই পোস্টে আপনাদের আমি এমন ১০টি ওয়েব ব্রাউজারের কথা বলবো যা ব্যবহার করলে আপনারা Chrome বা Firefox এর কথা ভুলে যাবেন। কারন যে ব্রাউজার গুলোর কথা বলবো সেগুলো ব্যবহারের ফলে আপনাদের ইন্টারনেট ব্রাউজ করা থেকে শুরু করে সবকিছু আলাদা ভাবে দেখতে শুরু করবেন। যা হবে সহজ, সাশ্রই আর অবশ্যই রোমাঞ্চকর।

নোটঃ শুরু করার আগে বলে রাখি এই পোস্টের লিস্ট আমি কোনটা বেস্ট আর কোনটা খারাপ এভাবে সাজাইনি। মানে আমি রেংক অনুযায়ী এই পোস্টটা লিখছি না। যেসব ব্রাউজারের কথা বলছি আমার কাছে সবগুলোই বেস্ট। কিন্তু হ্যাঁ, আমি অবশ্যই প্রত্যেকটা ব্রাউজারের সমস্যা, কোন দিক দিয়ে ভালো, কোন দিক দিয়ে খারাপসহ বিস্তর আলোচোনা করবো। তাই এই পোস্টটি আপনাকে এটা বলার জন্যে নয় যে আপনাকে এই ব্রাউজারটি ডাউনলোড করতেই হবে। না, আমি এমনটা বলছি না। আপনার যেটি ভালো লাগবে আপনি সেটিই ব্যবহার করবেন। তবে ভালোভাবে মনযোগ দিয়ে পড়ে বুঝে নিজের বিচার-বিশ্লেষণ করে পড়ে সিদ্ধান্ত নিন। কারন আপনার ডেটা আপনার একান্তই নিজের। আপনি যে ব্রাউজারটি ব্যবহার করবেন সেখানে আপনার ব্যক্তিগত থেকে সব ডেটাই বিদ্যামান থাকবে এটাই সাভাবিক। তাই আপনি যদি নিজের Privacy কে আলাদা ভাবে দেখেন তবে মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্যে বলছি। আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

টপিক শুরু করা যাক।

🔥10) Dolphin Web Browser

Link : Playstore

এই ব্রাউজারের সাইজ ছোট হলেও ব্রাউজটারটা অনেক ফাস্ট আর লাইট। যাদের লাইট আর মিনিমালিস্টিক ডিজাইন পছন্দ তাদের কাছে এই ব্রাউজারটি ভালো লাগবে আশা করছি। আপনারা যদি এই ব্রাউজারের সাথে আরো একটি ছোট্ট এপ্লিকেশন (যা তাদের নিজেদেরই বানানো) ডাউনলোড করে নেন তবে আরো ফাস্ট হয়ে যাবে। সেটারও লিংক দিয়ে দিচ্ছি।

Name : Dolphon jetpack
Link :

এটা ইন্সটল করার পর আরো কিছু ভালো ভালো ফিচার আপনারা পেয়ে যাবেন এই একটি ব্রাউজারের মধ্যেই। এটাকে একটা Extension বলতে পারেন।

এই ব্রাউজারে যেসব ফিচারগুলো আছে তা হচ্ছেঃ

1) Fullscreen support

2) Desktop view (খুবই ফাস্ট)

3) Night mode

4) Tabs
(Firefox এর মতো উপরে Tab দেখতে পারবেন)

5) No image
(আপনি যদি মোবাইল ডেটা ইউজার হোন তবে কাজে দিতে পারে এই মোড। এটা অন করার সাথে সাথে আপনি শুধু টেক্সট দেখতে পাবেন কোনো ছবি না)

6) incognito mode

7) Themes
(এখানে অনেক সুন্দর সুন্দর Themes আছে যা আপনাকে মুগ্ধ করতে বাধ্য)

8) Gesture & Sonar
(এটা একটা Cool feature যা অন্য ব্রাউজারগুলোতে পাবেন না। আপনি ড্রইং করার মাধ্যমে বিভিন্ন Gesture তৈরী করতে পারবেন। যেমনঃ আপনি শুধু “G” অক্ষর আকার সাথে সাথে আপনাকে গুগলে নিয়ে যাবে। এই ফিচারটা আমার কাছে প্রচন্ড ভালো লেগেছে। যারা অলস আর এড্রেস বারে গিয়ে বারে বারে এক ওয়েবসাইটের নাম টাইপ করতে চান না তাদের জন্যে সাহায্য করবে। আবার অনেক সময় দ্রুপ টাইপ না করে শুরু এক সেকেন্ডে Gesture এর মাধ্যমে আপনি আপনার পছন্দানুযায়ী সাইটে ঢুকতে পারবেন। এছাড়াও আপনি Gesture এর মাধ্যমে অনেক কিছু করতে পারবেন যা আপনি অন্যান্য ব্রাউজারে পাবেন না। যেমনঃ Back এ যাওয়া, Forward করা, New tab খোলা, Refresh করা ইত্যাদি।)

9) Android/Desktop/ipad/iphone এর মতো একটা ওয়েবসাইটকে আলাদা আলাদা ভাবে View করতে পারবেন।

10) Master password এর মাধ্যমে আপনি এক্সট্রা একটি সিকিউরিটি তৈরী করে রাখতে পারবেন। যার ফলে যদি কেউ আপনার ফোনের পাসওয়ার্ড জানলেও এই ব্রাউজার থেকে যখনই ব্রাউজারে সেভ করা পাসওয়ার্ড গুলো দেখতে যাবে তখনই এপ্লিকেশনের এই master password অপশনটি চালু হয়ে যাবে আর তাকে পাসওয়ার্ড দিয়ে তারপর তা দেখতে পেতে হবে। যারা Privacy নিয়ে একটু anxious তাদের জন্যে গুরুত্বপূর্ণ একটি ফিচার যা Chrome বা Firefox এ নেই।

এই ১০ টা ছাড়াও আরো অনেক ফিচার আছে যা লিখতে গেলে আলাদা একটা পোস্টই আমি এই একটি ব্রাউজার নিয়েই লিখতে পারবো। তাই বাকীগুলো আপনারা চেক করে নিবেন। আমি যেগুলো জানানো প্রয়োজনবোধ করেছি সেগুলোই লিখলাম।

💣 এখন যে দুটি ব্রাউজারের কথা বলবো সেগুলো Specially তাদের জন্যে যারা ইন্টারনেটে নিজেদের Privacy নিয়ে খুবই সচেতন আর নিজেকে পুরোপুরিভাবে Hide করে রাখতে চান। আপনারা ভালো করেই জানেন আমি কোন ব্রাউজার দুটির কথা বলছি। 💣

🔥9) Tor browser :

Link : Playstore

যাদের Dark Web/Deep Web নিয়ে ধারনা আছে তারা এই ব্রাউজারের সাথে খুব ভালোভাবেই পরিচিত। হ্যাকারদের কাছেও এই ব্রাউজার খুবই জনপ্রিয়। সে কথা আজ থাক। আমি আজ সে বিষয় নিয়ে কথা বলবো না। আমি যেহেতু বলছি ব্রাউজের বৈশিষ্ঠ্য নিয়ে তাই এ নিয়েই কথা বলবো। এই ব্রাউজার ব্যবহার করতে হলে আপনাকে আলাদা করে আরেকটি VPN এর প্রয়োজন পড়বে না। কারন এখানে আপনার Location তো Hide থাকবেই তার সাথে এই ব্রাউজারে যে সার্চ ইঞ্জিনটা রয়েছে সেটি হচ্ছেঃ DuckDuckGo যা সম্পর্কে পরবর্তী স্টেপে কথা বলবো। ব্রাউজারটা ব্যবহারের ক্ষেত্রে অনেকটা Slow মনে হলেও Privacy এর দিক দিয়ে একে কেউ হারাতে পারবে না। তাই যারা Privacy চাচ্ছেন তাদের জন্যে এতটুকুতো compromise করতেই হবে।

🔥8) Duckduckgo browser

Link : Playstore

এই ব্রাউজারটি যে কোম্পানির তাদের একটি সার্চ ইঞ্জিনও আছে। এদের আর tor এর কাজ হচ্ছে আপনাকে ইন্টারনেটের দুনিয়ায় হ্যাকার আর ট্র‍্যাকার দুটি থেকেই প্রোটেক্ট করা। Tor browser থেকে অবশ্য এটা একটু ব্যতিক্রম। কারনে এটা লাইট আর ফাস্ট Tor এর থেকে। যাদের Tor নিয়ে সমস্যা আছে তারা এই ব্রাউজারটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। আশা করি নিরাশ হবেন না। প্রাইভেসি নিয়ে চিন্তা থাকলে ব্যবহার করতে পারেন। Recommend করবো অবশ্যই।

🔥7) Puffin

Link : apkmody

এই এপ্লিকেশনটি সাধারন ওয়েব ব্রাউজারের মতো কাজ করে না। এটির নিজস্ব ক্লাউড বেসড সিস্টেম আছে। আপনার ইন্টারনেট কানেকশন যত ভালো হবে এই ব্রাউজারটি ব্যবহার করে তত বেশি মজা পাবেন। আর ইন্টারনেট স্পিড লো হলেও ওয়েবসাইট অনেক দ্রুত লোড হয়। যার কারনে আমি এই ব্রাউজারটি অনেক সময় স্লো ইন্টারনেট কানেকশন থাকলে ব্যবহার করি। যারা মোবাইল ডেটা ইউজার তাদের জন্যে বেশি ভালো। আর এতে Mouse/keyboard/gamepad এর Option আছে যা একে অন্যান্য ব্রাউজার থেকে একে Unique বানিয়েছে। ভালো একটি ব্রাউজার। ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

🔥6) Via Browser

Link : Playstore

2 Mb এর এই এপ্লিকেশনে আপনি যেসব ফিচার পাবেন তা আপনি 100 mb এর এপ্লিকেশনেও পাবেন কি না সন্দেহ আছে। প্লে-স্টোরে থাকা সবচেয়ে কম এম্বির ভিতরে সব থেকে সেরা ব্রাউজারগুলোর মধ্যে একটি এই ব্রাউজার। আমি নিজে ব্যবহার করি তাই বলছি। অন্যদের থেকে শুনে নয়। যেহেতু সাইজ খুবই কম তাই খুবই লাইট আর প্রচন্ড ফাস্ট একটি ব্রাউজার।
এতে যা যা ফিচার পাবেনঃ

1) Night mode

2) incognito mode

3) share

4) desktop site

5) tools

6) find in page

7) save page (অফলাইনে পেজ সেভ করে পড়তে পারবেন)

8) full screen

9) show images

10) Chrome(Pc) এর মতো করে webpage view করতে পারবেন। Pc এর মতো হুবহু একইরকমভাবে দেখায়। অন্যান্য ব্রাউজারে যেভাবে Desktop view করে সেটা আমার পছন্দ হয় না। কারন সেটা একেবারে original pc এর মতো করে view করতে দেয় না। কিন্তু এই ২ mb এর এপ্লিকেশনে সেটা অনায়াসেই সম্ভব।

11) IE 11(PC) এর মতো করে webpage view করতে পারবেন। এটাও accurate ভাবে view করতে দেয়।

12) Safari (iPhone) এর মতো করে webpage view করতে পারবেন। এটাও accurate ভাবেই view করে।

13) Nokia Browser এর মতো করে webpage view করতে পারবেন। আপনারা যারা Nokia-র ফোনগুলো ব্যবহার করেছেন এটার মজা শুধু তারাই বুঝবেন।

এগুলোতো মাত্র কয়েকটা ফিচারের কথা বললাম। আমি তো এখনো Settings এর কথা বলিনি। এখানে আপনি প্রচুর পরিমানে customization করতে পারবেন। এগুলো আপনারা নিজেরাই পারবেন তাই বেশি কিছু বললাম না। আমি এই ব্রাউজারটা অবশ্যই Recommend করবো আপনাদের। আমার দেখা বেস্ট ব্রাউজারগুলোর মধ্যে টপে থাকার সামর্থ্য রাখে এই ব্রাউজার।

🔥5) Uc Browser/Uc mini/ Uc Turbo

Link : Playstore

Uc browser কে তো সবাই চিনেন। এর আলাদা আলাদা ৩টি ব্রাউজারই বেশ জনপ্রিয়। আর এদের আলাদা আলাদা বিভিন্ন ভালো ভালো ফিচারের কারনে আমাকে এই লিস্টে এদের এড করে নিতে হচ্ছে। Uc turbo টা আমার কাছে বেশ unique আর cool লাগে। যেখানে Uc mini আর Uc browser দুটোকেই জমজ ভাইয়ের মতো লাগে। যাই হোক, সমালোচনা করে লাভ নেই। যারা Uc browser এর Fan তারা বলতে পারবেন না এটা কেন এড করিনি লিস্টে। ৩ টা কেই আমি এড করেছি। কারন ৩ টাই সেরার জায়গা দখল করে আছে প্লে-স্টোরে।

🔥4) Opera / Opera mini / Opera Beta / Opea mini Beta / Opera Touch

Link : Playstore

আমি ছোটবেলা থেকেই Opera ব্রাউজারের অনেক বড় ভক্ত। সেই Java থেকে শুরু করে বর্তমানে Android এ কোনো সময়ই বাদ দিইনি এই Legendary browser ব্যবহার করার ক্ষেত্রে। এখনো ব্যবহার করি এই ব্রাউজার। এখনো মনে আছে Nokia তে বাটন ফোনে প্রচুর গেমস ডাউনলোড করেছি এই Opera mini র মাধ্যমে। এখনো সেই Opera mini-র জন্যে আমার মনে একটা soft spot রয়েছে যা ভবিষ্যতেও থাকবে আশা করছি। কারন এই ব্রাউজারটিও অনেক ভালো উন্নত করছে। যদিও আলাদা আলাদা ৫ টা ব্রাউজার আছে প্লে-স্টোরে এদের। তাই যারা Opera র ভক্ত তারা তারাও আমাকে কিছু বলতে পারবেন না যে এটা কেনো এড করিনি। যাই হোক, আমি সাজেস্ট করবো আসল Opera browser টাই ব্যবহার করতে। কারন এতে inbuilt VPN আছে আর তার সাথে আরো অনেক ফিচার আছে। ফাস্টও অনেক। তাছাড়া আপনার যদি আলদা আলাদা ব্রাউজারের প্রয়োজন হয় ভিন্ন ভিন্ন কাজ করার জন্যে তবে আপনি অন্য গুলোও ডাউনলোড করে দেখতে পারেন।

🔥3) Brave Browser

Link : Playstore

এই ব্রাউজারের Fan এর সংখ্যা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। Chrome এর Alternative হিসেবে এটাকেই সবাই সাজেস্ট করবে। কারন এতে যেসব ফিচার আছে তা ক্রোম থেকেও ভালো আর ক্রোমে কিছু এমন ফিচার এড করাও নেই। তাছাড়া আপনি যদি একটি এড-ফ্রি এক্সপেরিয়েন্স চান তবে এই ব্রাউজারটা অবশ্যই রিকমেন্ড করবো। কিন্তু ভাই ট্রিকবিডিতে ঢোকার সময় এডব্লক টা সরিয়ে নিয়েন প্লিজ 🙂🙏। কারন আপনারা যদি এড না দেখেন তবে এই ওয়েবসাইটের উন্নতি হবে না আর এমন পোস্ট দেখতেও পাবেন না।  বাংলাদেশে এই এমন একটা প্ল্যাটফর্ম আছে যেটিকে টিকিয়ে রাখতে পারেন আপনি নিজেই। যাই হোক, এতটুকু তো সব কন্টেন্ট রাইটাররা আপনাদের থেকে ডিজার্ভ করেই। তাই না?
এই ব্রাউজার আমি ব্যবহার করছি অনেক দিন ধরে। কারন আমি যা যা চাই তা ক্রোম না পারলেও এই ব্রাউজার আমাকে ঠিকই দিতে পেরছে।

🔥2) Kiwi browser

Link : Playstore

এই ব্রাউজার Brave এর মতই। কিন্তু এতে Brave থেকে বেশি ফিচার দেওয়া আর আমার কাছে এটা Brave থেকেও বেশি ফাস্ট মনে হয়েছে। আমি Regular ব্যবহার করি। যারা Extension ব্যবহার করেন তাদের জন্যে এই ব্রাউজারটি রিকমেন্ডেশনে থাকবে। যদিও Brave এও Extension ব্যবহার করা যায়। কিন্তু তবুও এটা আমার কাছে বেশি ফাস্ট আর সহজ মনে হয়েছে আর ফিচারে ভরা এই ব্রাউজারটি। তাই এটি ব্যবহারে আপনাদের উৎসাহ দিবো।

🔥1) 1DM+

Link : Rexdl (Mod)

আমি জানি অনেকেই বলবেন এটা তো কোনো ব্রাউজার নয়, এটা একটা ডাউনলোডিং এপ্লিকেশন। হ্যাঁ, সেটা আমি নিজেও জানি। আর আমি এটা ডাউনলোডের জন্যেই ব্যবহার করি। কিন্তু আমি যা বলতে চাচ্ছি তা একটু মন দিয়ে শুনুন বা পড়ুন।
এই এপ্লিকেশনের মাধ্যমে আপনি ডাউনলোডের জন্য যেসব অপশন পাবেন তার থেকে ৩ গুন বেশি অপশন পাবেন ব্রাউজিং এর ক্ষেত্রে। আপনি যদি এর সেটিংস এ যান তবেই বুঝতে পারবেন আমি কিসের কথা বলছি। এখানে প্রচুর অপশন দেওয়া আছে। প্রচুর মানে প্রচুর। এত এত সিস্টেম দেওয়া আছে যা আপনি একদিনে ব্যবহার করে শেষ করতে পারবেন না। একবার ভালোভাবে ব্যবহার করা শিখে গেলে অন্য ব্রাউজারের প্রতি আপনার লোভ একেবারেই কমে যাবে।

কিছু ফিচারের কথা বলছিঃ

১) Capture Video/Photo – সবচেয়ে বেশি কাজের ফিচারগুলোর মধ্যে একটি। এর মাধ্যমে আপনারা যেকোনো ওয়েবসাইটের (ইউটিউব এবং কিছু ওয়েবসাইট বাদে) Video বা Pictures সব একসাথে ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনাকে কিছুই করতে হবে না। শুধু ওয়েবসাইটটিতে ঢুকবেন আর উপরে ডানে দেখতে পাবেন লাল করে আইকনে লেখা কতগুলো video/picture এই application catch করেছে। তারপর ঐ আইকনে ক্লিক করে সব একসাথে মার্ক করে ডাউনলোড করতে পারবেন। এমনকি আলাদা আলাদা Quality তেও ডাউনলোড করতে পারবেন।

২) Scan QR Code – এটি অনেক কাজের একটি ফিচার। যাদের নিয়মিত QR Code Scan করতে হয় তারা অবশ্যই বুঝতে পারবেন আমি কেন এটাকে উপকারী বলছি।

৩) Clone Tab – এটি যারা মাল্টিটাস্কিং করে তাদের জন্যে অনেক উপকারী একটা ফিচার। এর মাধ্যমে আপনি শুধু এপ্লিকেশনটিকে জানাবেন আপনার কয়টা Tab প্রয়োজন।  যেমন আমি টাইপ করলাম ৩৬ টা। সাথে সাথে অটোমেটিক্যালি ৩৬ টা ট্যাব খুলে যাবে। আপনি চাইলে সবগুলো Desktop Mode এও খুলতে পারবেন।

৪) Grabber – এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট থেকে আপনি Video,subtitles,audio,image,documents,compressed,program,torrent,custom, all files একসাথে grab করতে পারবেন আর সব একসাথে এক ক্লিকে ডাউনলোড করতে পারবেন।

৫) Open tabs for all links available in clipboard – আপনি যদি একসাথে অনেকগুলো লিংক কপি করে থাকেন তবে যদি আপনার একটা একটা করে সব লিংক খুলতে অসুবিধা হয় তবে এই অপশনে ক্লিক করার সাথে সাথে সব কপিকৃত লিংক একসাথে খুলে যাবে।

৬) এখানে ১৩ টা সার্চ ইঞ্জিন আছে। যাদের কথা বলতে গেলে অনেক লিখতে হবে। তাই আপনারা নিজেরা চেক করে নিয়েন

এছাড়াও এখানে এমন আরো যেসব ফিচারস দেওয়া আছে সেগুলো বলতে বলতে একটা সম্পূর্ণ বই আমার লিখা হয়ে যাবে। তাই এতো কিছু বলতে চাচ্ছি না। আপনারা এক এক করে নিজেরা ব্যবহার করে দেখবেন। আমি ১০০% গেরান্টি দিয়ে বলতে পারি আপনাদের কাছে এই এপ্লিকেশনটি ভালো লাগবেই। আমার সবচেয়ে পছন্দের এপ্লিকেশন গুলোর মধ্যে একটি এটি। আমি এটাকে ১ নাম্বারে রেখেছি এর প্রচুর ফিচারস এর কারনে। অনেকে আমার সাথে দ্বিমত পোষন করতে পারেন। কিন্তু এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত। আপনার অবশ্যই এই এপ্লিকেশনটি একবার হলেও ব্যবহার করে দেখা উচিত।

অবশেষে বলতে চাই, ধন্যবাদ পোস্টটি পড়ার জন্যে। এই পোস্টের মাধ্যমে আমি আমার ব্যক্তিগত মতামতগুলো দেওয়ার চেষ্টা করেছি এবং তার সাথে কোন ব্রাউজার কেমন সেগুলোও বলার চেষ্টা করেছি। ভুলে হয়ে থাকলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখার জন্যে অনুরোধ করছি। ভালো না লাগলে নেগেটিভ কমেন্ট করার কোনো প্রয়োজন নেই। কারন আমি আগেও বলছি আর এখনো বলছি, আমি নেগেটিভিটি পছন্দ করি না আর সহ্যও করতে পারি না। সাজেশন থাকলে দিতে পারেন।
ধন্যবাদ।
This Is 4HS4N
Logging Out…

The post Chrome/Firefox এর থেকে ভালো প্রচুর ফিচারে ভরা ১০টি ওয়েব ব্রাউজার। Top 10 Best Web Browsers Better Than Chrome/Firefox appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published.