Discord অ্যাপ কি? ডিসকর্ড অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই!

Posted on

আজকে আমরা ডিসকর্ড অ্যাপ নিয়ে জানার চেষ্টা করব। মোটামুটি সবাই হয়তো জানেন যে, ট্রিকবিডি কর্তৃপক্ষ সকল সদস্যদের সাথে যোগাযোগ রক্ষার জন্য বর্তমানে এই ডিসকর্ড অ্যাপটি ব্যবহার করতেছেন। তাই অনেকে হয়তো এই অপরিচিত ডিসকর্ড অ্যাপ কি? এর সম্পর্কে জানার জন্য অধীর আগ্রহে বসে আছেন। তাই তাদের জন্যই আমার আজকের এই পোস্ট। আসলে ডিসকর্ড একটি জনপ্রিয় গ্রুপ চ্যাটিং অ্যাপ। যা ২০১৫ইং সালে যাত্রা শুরু করে। মূলত এটি গেমারদের জন্য তৈরি করা হয়েছিল। যদিও এটি গেমারদের গেম এর বিষয় নিয়ে চ্যাটিং করার জন্য তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু বর্তমানে এটি সাধারণ ব্যাবহারকারীদের কাছেও বেশ জনপ্রিয়। লেখক, বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান ছাড়াও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এখন ব্যবহারকারীরা এটি ব্যবহার করে থাকে। বিশেষ করে করোনা মহামারীর সময় এটি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করে। কারণ এই সময় মানুষ অনলাইনের মাধ্যমে সকল কার্যক্রম পরিচালনা করেছিল। বর্তমানে এর মাসিক ব্যবহারকারী প্রায় ১৪০ মিলিয়নেরও বেশি।

বর্তমান সময়ের সর্বাধিক জনপ্রিয় চ্যাটিং অ্যাপগুলির মধ্যে একটি হলো ডিসকর্ড। অ্যাপটি ম্যাক, উইন্ডোজ, আইফোন ও অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মে ব্যবহার করা যায়। এটি মূলত গ্রুপ বা কমিউনিটি বা সম্প্রদায় ভিত্তিক বার্তা আদান প্রদানে বিশেষ সুবিধা দিয়ে থাকে। যেগুলোকে এখানে “সার্ভার” বলে সম্বোধন করা হয়। এই সার্ভারকে আবার দুই ভাগে ভাগ করা যায় চ্যানেল হিসেবে। একটা হলো টেক্সট বা টাইপ বা লিখিত আকারে বার্তা আদান প্রদানের চ্যানেল। আর আরেকটি হলো ভয়েস বা অডিও বা কণ্ঠ এর ব্যবহারের মাধ্যমে বার্তা আদান প্রদানের চ্যানেল।

টেক্সট বা টাইপ বা লিখিত চ্যানেল এর মাধ্যমে একে অপরের সাথে লিখিত আকারে মনের ভাব আদান প্রদান করে থাকে। আর ভয়েস বা অডিও বা কণ্ঠ ব্যবহারের মাধ্যমে একে অপরের সাথে ভয়েস আকারে কথা বলে মনের ভাব আদান প্রদান করে থাকে।

প্রত্যেকটি সার্ভারেরই সাধারণত একাধিক চ্যানেল থাকে। যেগুলোতে ভিন্ন ভিন্ন বিষয় নিয়ে আলাদাভাবে চ্যানেল খোলা থাকে। যার ফলে এক একটি চ্যানেলে নির্দিষ্ট বিষয়ের উপরে আলাপ আলোচনা হয়ে থাকে। এতে ব্যবহারকারীদের সহজে একটি নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর আলোচনা করিতে সুবিধা হয়। অ্যাপটিতে চ্যানেলগুলিকে # সিম্বলসহ একটি নির্দিষ্ট নামের দ্বারা ভাগ করা হয়। যেমন: #general, #notice ইত্যাদি।

একটি সার্ভারের একটি চ্যানেলে (#general) এ উপরের স্ক্রিনশটের মত সাধারণ বিষয় নিয়ে সকল সদস্যগণ আলাপচারিতা করে থাকে। #notice চ্যানেলে সার্ভারের কর্তৃপক্ষগণ সার্ভার নিয়মনীতি বা অন্যান্য বিষয়ক বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে থাকেন। এইরকমভাবেই একটি সার্ভারের বিভিন্নি চ্যানেলে নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর আলোচনা করা হয়ে থাকে। (যারা ইতিমধ্যে ট্রিকবিডি বা অন্য কোন সার্ভারে যুক্ত আছেন। তারা আশা করি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।)

ডিসকর্ড এ উপরের স্ক্রিনশটের মত এইরকম বিভিন্ন বিষয়ের উপর অনেক জনপ্রিয় সার্ভার রয়েছে। তবে এই জনপ্রিয় সার্ভারগুলির মধ্যে বেশিরভাগই গেম এর উপর তৈরি করা সার্ভারগুলি জনপ্রিয়। আপনি যদি কোন বিষয়ের উপর সার্ভার খুঁজতে চান তাহলে গুগল মামার সাহায্য নিতে পারেন। অথবা ডিসকর্ড এর নিজস্ব সার্চ বার অনুসন্ধান বক্স ব্যবহার করেও সার্ভার খুঁজে নিতে পারবেন। তবে হ্যাঁ, ডিসকর্ড কিন্তু সকল জনপ্রিয় সার্ভারগুলি ট্র্যাক করতে পারে না। তাই গুগল মামার সাহায্য নিলেই আপনি আপনার কাঙ্খিত সার্ভারটি পেতে পারেন।

ডিসকর্ড এর যে কোন সার্ভারে চ্যাটিং করার সময় আপনি আপনার বার্তায় জিফ যুক্ত করতে /giphy এবং /spoiler হিসেবে চিহ্নিত করার কমান্ড ব্যবহার করিতে পারিবেন। এছাড়াও এইরকম আরো অনেক ধরনের কমান্ড রয়েছে। যা উপরের স্ক্রিনশটটি দেখলেই বুঝতে পারবেন।

অন্যান্য জনপ্রিয় চ্যাটিং অ্যাপগুলির মত ডিসকর্ড এ বট সিস্টেম রয়েছে। যে বটগুলো দিয়ে আপনি আপনার সার্ভার এর কিছু কাজ স্বয়ংক্রিয়ভাবে সম্পাদন করিতে পারিবেন। ডিসকর্ড এর জনপ্রিয় বট পেতে চাইলে আপনার গুগল মামার সাহায্য নিতে হবে। গুগলে সার্চ দিলে অনেক জনপ্রিয় বট এর তালিকা আপনার সামনে হাজির হবে। যেমন: উপরের স্ক্রিনশটের মত ট্রিকবিডি Mee6 নামক বট দিয়ে তাদের সার্ভারে সদ্য বা নতুন যুক্ত হওয়া সদস্যকে অভিনন্দনমূলক বার্তা প্রদান করে থাকে। যা একদম স্বয়ংক্রিয়ভাবে সম্পাদন হয়ে থাকে।

এছাড়াও ডিসকর্ড অ্যাপের মাধ্যমে আপনি আপনার ইউটিউব, স্পটিফাই, গিটহাব, টুইটার, ফেসবুক ইত্যাদি জনপ্রিয় অ্যাপগুলির প্রোফাইলও যুক্ত করিতে পারিবেন। সব অ্যাপের মতই ডিসকর্ড এরও প্রিমিয়াম সিস্টেম রয়েছে। যদি আপনি প্রিমিয়াম ব্যবহার করেন তাহলে আরো অনেক বাড়তি সুবিধা ভোগ করিতে পারিবেন। তাদের প্রিমিয়াম সিস্টেম এর নাম Nitro যা সাবসক্রাইব করার মাধ্যমে আপনি আপনার প্রোফাইলকে আরো সুন্দর করে সাজাতে পারবেন। বিশেষ স্টিকারগুলি পাবেন। অনেক ধরনের ইমোজি পাবেন। ২টি সার্ভার বুস্ট করতে পারবেন। আপনার প্রোফাইল স্ট্যাটাসে কস্টম প্রোফাইল বেডজ তৈরি করিতে পারিবেন। ১০০ এমবির উপরের যেকোন ধরনের ফাইল আপলোড দিতে পারবেন। যেকোন ভিডিও এইচডি রেজুলেশনের পাবেন। ৪০০০ এর উপর বর্ণ বা লেখার মাধ্যমে বার্তা আদান প্রদান করিতে পারিবেন। এছাড়াও ২০০ এর উপর সার্ভারে যুক্ত হতে পারিবেন।

উপরোক্ত সুযোগ সুবিধাসহ আরো অনেক ধরনের সুযোগ সুবিধা রয়েছে বর্তমান সময়ের চ্যাটিং অ্যাপ ডিসকর্ড এর। আশা করি যারা ডিসকর্ড সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন, বা যারা ট্রিকবিডি এর ডিসকর্ড সার্ভারে যুক্ত আছেন। কিন্তু কিছু বুঝতেছেন না। তাদের এই পোস্টটি উপকারে আসবে। আগামীতে যদি সুযোগ হয় তাহলে ডিসকর্ড নিয়ে আরো কিছু পোস্ট করার চেষ্টা করব।

The post Discord অ্যাপ কি? ডিসকর্ড অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই! appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *