Education guide: tag question চলুন শিখে নিই!

Posted on

প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা, tag question নিশ্চয় নামটি তোমরা শুনেছো। ক্লাস সিক্স থেকে পরবর্তী ক্লাসে, tag question প্রশ্নটিই পরীক্ষায় লিখতে হয়। এখন তুমি যদি tag question কি? কিভাবে করতে হয় এই ট্যাগ কোশ্চেন? তাহলে হয়তোবা পরীক্ষায় লিখতে অসুবিধা হবে অনেক! তো আজকের এই আর্টিকেলে আমরা বেসিকালি ভাবে, ট্যাগ করছেন নিয়ে আলোচনা করব! এটি সাধারণত ইংলিশ গ্রামারের, খুবই কমন ও গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রশ্ন!

এমনকি পরীক্ষায় এই প্রশ্নের জন্য, বেশ ভালই নম্বর দিয়ে থাকে। যদিও ইংলিশ গ্রামার সম্পর্কে এর আগে আরো কিছু আর্টিকেল পাবলিশ করা হয়েছে। আপনারা যারা, ইংলিশ গ্রামারের দুর্বল তারা আর্টিকেলগুলো পড়তে পারেন। আর আজকে আমরা ঠিক একই ইংলিশ গ্রামারের, tag question পাট বা অংশটি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে এখন আমরা, tag question অংশটি নিয়ে বিস্তারিত জেনে নিই।

Tag question কেন জানা জরুরী?

ট্যাগ কোশ্চেনঃ ট্যাগ কোশ্চেন পরীক্ষার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও তথ্যবহুল একটি প্রশ্ন। যেটার জন্য, বেশ ভালই নম্বর দিয়ে থাকেন। সুতরাং সঠিকভাবে আমরা যদি, ট্যাগ কোশ্চেন পরীক্ষার প্রশ্নের উত্তর দিতে পারি তাহলে নম্বর সহজেই পেতে পারেন এখান থেকে। তাছাড়া অন্যান্য প্রশ্নের চেয়ে, এই ট্যাগ কোশ্চেন খুবই সহজ। যে কেউ চাইলে একটু চেষ্টা করলে অবশ্যই সেও, tag question করতে পারবে খুব সহজে।

অন্যান্য প্রশ্নের উত্তর, আপনি দিতে পারেন কিংবা না পারেন। একবার যদি আপনি ট্যাগ কোয়েশ্চেন সম্পর্কে সঠিক ধারণা, ও নিয়ম নীতি সম্পর্কে নলেজ চলে আসে। তাহলে আপনিও খুব সহজে ট্যাগ কোশ্চেন লিখতে সক্ষম হবেন। সুতরাং আশা করি বুঝতে পেরেছ যে, কেন আমাদের ট্যাগ কোশ্চেন সম্পর্কে জানতে হবে। Tag question খুবই গুরুত্বপূর্ণ ইংলিশ গ্রামারের প্রশ্ন হওয়ায়, তাই চলুন এখন আমরা ট্যাগ কোশ্চেন নিয়ে বিস্তারিত জেনে নিই।

Tag question ট্যাগ কোশ্চেন কি?

ট্যাগ কোশ্চেনঃ সাধারণত ট্যাগ শব্দের অর্থ হলো জুড়ে দেওয়া। এবং কোশ্চেন শব্দের অর্থ হলো প্রশ্ন। সুতরাং কথোপকথনের সময় সেন্টেন্স এর শেষে যে, একটি সমর্থন সূচক প্রশ্ন সংযোগ করা হয়, তাকেই সাধারণত tag question বলা হয়ে থাকে। আশা করি তোমরা ট্যাগ কোশ্চেন আসলে কি? এবং ট্যাগ কোশ্চেন কাকে বলে এটি বুঝতে পেরেছেন!

Tag question করার সময় সাহায্যকারী ক্রিয়ার উপর অধিক নির্ভর করতে হয়। বাক্যে সাহায্যকারী ক্রিয়া উপস্থিতি থাকুক বা না থাকুক, উত্তরের শুরুতেই সাহায্যকারী ক্রিয়া যে করে হোক আনতে হবে। তারপর বাক্যটি পজেটিভ থাকলে উত্তর এ নেগেটিভ করতে হবে। অন্যদিকে নেগেটিভ থাকলে উত্তর এ পজেটিভ আনতে হবে। এবং শেষের দিকে subject-এর পারসন রূপ বসাতে হবে।

বন্ধুরা উপরোক্ত বিষয়গুলো তোমরা একটু মন দিয়ে পড়বা। কেননা উপরোক্ত আমরা যে তিনটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি সেগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এবং এই তিনটি কাজই ট্যাগ এর মূল এবং প্রধান সূত্র বলতে পারো। সুতরাং আমাদেরকে উপরোক্ত তিনটি বিষয় অবশ্যই মনে রাখা জরুরী, tag question লেখার জন্য।

Tag question লেখার জন্য যা যা করতে হয়?

ট্যাগ কোশ্চেনঃ tag question লেখার জন্য বিভিন্ন ধরনের চেঞ্জ করতে হয় বাক্য। সুতরাং বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, এই চেঞ্জিং সম্পর্কে আপনার ধারণা না থাকলে অবশ্যই, এ বিষয়টি আপনার ধারণা থাকা জরুরি, tag question জানার আগ্রহ যদি থাকে তাহলে। সুতরাং এখন ট্যাগ করছেন লেখার জন্য যা যা করতে হয় তা নিচে দেয়া হল।

সাধারণত ট্যাগ কোশ্চেন করতে হলে, প্রধানত তিনটি বিষয় অবশ্যই ধারণা থাকা জরুরী।

১. বাক্যে শুরুতে সাহায্যকারী ক্রিয়া প্রথমে না থাকলে, যে করেই হোক সাহায্যকারী ক্রিয়া প্রথমে আনতে হবে।

২. এফারমেটিভ থাকলে বাক্যটি নেগেটিভ করতে হবে। আর যদি নেগেটিভ থাকে বাক্যটি তাহলে এফারমেটিভ করতে হবে।

৩. এবং পরিশেষে বা বাক্যের শেষে, সাবজেক্ট এর পূর্ণরূপ বসাতে হবে। বাক্যটি লেখার শেষে আমাদেরকে সাবজেক্ট এর প্রনাউন রূপ বসাতে হবে।

যেমন উদাহরণ হিসেবেঃ

Roman was going to mosque, wasn’t he?

ট্যাগ কোশ্চেনঃ ট্যাগ করছেন লেখার জন্য বিভিন্ন ধরনের চেঞ্জ করতে হয় বাক্য। সুতরাং বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ, এই চেঞ্জিং সম্পর্কে আপনার ধারণা না থাকলে অবশ্যই, এ বিষয়টি আপনার ধারণা থাকা জরুরি, tag question জানার আগ্রহ যদি থাকে তাহলে। সুতরাং এখন ট্যাগ করছেন লেখার জন্য যা যা করতে হয় তা নিচে দেয়া হল।

বন্ধুরা উপরোক্ত বিষয়গুলো তোমরা একটু মন দিয়ে পড়বা। কেননা উপরোক্ত আমরা যে তিনটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি সেগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এবং এই তিনটি কাজই ট্যাগ এর মূল এবং প্রধান সূত্র বলতে পারো। সুতরাং আমাদেরকে উপরোক্ত তিনটি বিষয় অবশ্যই মনে রাখা জরুরী, tag question লেখার জন্য।

Tag question কেন জানা জরুরী?

ট্যাগ কোশ্চেনঃ ট্যাগ কোশ্চেন পরীক্ষার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও তথ্যবহুল একটি প্রশ্ন। যেটার জন্য, বেশ ভালই নম্বর দিয়ে থাকেন। সুতরাং সঠিকভাবে আমরা যদি, ট্যাগ কোশ্চেন পরীক্ষার প্রশ্নের উত্তর দিতে পারি তাহলে নম্বর সহজেই পেতে পারেন এখান থেকে। তাছাড়া অন্যান্য প্রশ্নের চেয়ে, এই ট্যাগ কোশ্চেন খুবই সহজ। যে কেউ চাইলে একটু চেষ্টা করলে অবশ্যই সেও, tag question করতে পারবে খুব সহজে।

অন্যান্য প্রশ্নের উত্তর, আপনি দিতে পারেন কিংবা না পারেন। একবার যদি আপনি ট্যাগ কোয়েশ্চেন সম্পর্কে সঠিক ধারণা, ও নিয়ম নীতি সম্পর্কে নলেজ চলে আসে। তাহলে আপনিও খুব সহজে ট্যাগ কোশ্চেন লিখতে সক্ষম হবেন। সুতরাং আশা করি বুঝতে পেরেছ যে, কেন আমাদের ট্যাগ কোশ্চেন সম্পর্কে জানতে হবে।

প্রিয়, বন্ধুরা এই ছিল tag question,,,, আশা করি তোমরা, tag question এর উপরোক্ত নিয়ম-নীতিগুলো দেখে বা জেনে, tag question সহজে করতে পারবা। সুতরাং বুঝতে কোথাও অসুবিধা হলে সেটা কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারো। বরাবরের মতো আমাদের আজকের এই আর্টিকেলটি পর্যন্তই। দেখা হবে অন্য কোন আর্টিকেলে। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন এবং নিরাপদে থাকবেন। আর্টিকেলটি পড়ার জন্য সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

The post Education guide: tag question চলুন শিখে নিই! appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *