NO Spoiler ‘বাংলা মাস্টারক্লাস সিনেমা’ [পর্ব – ০২]

Posted on

🔴 No Spoiler
‘বাংলা মাস্টারক্লাস সিনেমা’
পর্ব – ০২
যাদের বাংলাদেশী সিনেমা নিয়ে এলার্জি আছে তাদের জন্য কিছু বাংলা মাস্টারক্লাস কিংবা প্রথম সারির সিনেমার লিস্ট।
লিস্টটা একান্তই আমার ব্যক্তিগত,যারা নিজের দেশের সিনেমাকে জানতে আগ্রহী তারা দেখতে পারেন সিনেমাগুলো।
প্রতিটি পর্বেই দশটি করে,মোট পাঁচটি পর্বে পঞ্চাশটি দারুন ছবির খোঁজ দেয়ার প্রচেষ্টা থাকবে।বেশিরভাগ সিনেমাই ইউটিউবে আছে।

🎬— ‘ওরা এগারো জন’
মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে প্রথম বাংলা সিনেমা।এই সিনেমায় মুক্তিযুদ্ধের কাহিনীকে সবথেকে নিছকভাবে দেখানো হয়েছে,কেননা প্রত্যেকটা কলাকৌশলীই ছিলেন,যুদ্ধের সময়ের এবং বেশিরভাগই মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন।পুরো সিনেমা জুড়েই টেনশন কাজ করবে।আর চাষী নজরুল ইসলাম তার সুনিপুণ হাতে এর নির্মান করেছিলেন।অভিনয় করেছিলেন খসরু,রাজ্জাক,শাবানা,নতুন।
আই.এম.ডি.বি : ৮.৮/১০
ব্যক্তিগত : ৮.৫/১০

🎬— ‘রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত’
রাজলক্ষ্মী ও শ্রীকান্ত সিনেমাটিতেই সম্ভবত আমার দেখা প্রথম বাংলা সিনেমা,যেখানে নারীর নিজস্ব একটা আইডিন্টি রয়েছে,সেটাকে পুঁজি বানিয়ে গল্প বুনেছে।সিনেমার মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাবানা,রাজ্জাক,বুলবুল আহমেদ।
আই.এম.ডি.বি : ৮.৮/১০
ব্যক্তিগত : ৮.৫/১০

🎬— ‘আনন্দ অশ্রু’
আমাকে যদি কেউ প্রশ্ন করে,বাংলা সিনেমার প্রিয় তিনটি রোমান্টিক সিনেমার নাম বলো,তাহলে আমি আনন্দ অশ্রুর নাম নিবো।‘খসরু’ আর ‘দোলা’ র নিছক ভালবাসার সেই করুন পরিনতি নাইন্টিন কিডস থেকে শুরু করে বর্তমান জেনারেশনও পছন্দ করেছে।সম্ভবত এই সিনেমার গানগুলোই বর্তমান শিল্পীরা সবথেকে বেশি কভার করেছে এখন অবধি।এই সিনেমা না দেখলে বুজতেই পারতাম না,ক্লাস এইট/নাইনে পড়ুয়া একটা মেয়ে কতটা ম্যাচিউরড অভিনয় করতে পারে।
আই.এম.ডি.বি : ৮/১০
ব্যক্তিগত : ৮.৫/১০

🎬— ‘অবুজ হৃদয়’
এখন অবধি ত্রিভুজ প্রেমের গল্পে সেরা কাজের ভেতর অন্যতম একটা কাজ মনে হয় অবুজ হৃদয় কে।মাঝেমধ্যে গল্পে প্রেমকে ছাড়িয়ে গেছে বন্ধুত্বের অনুরাগ।এই সিনেমার ‘তুমি আমার জীবন’ গানের লোকশন,কোরিওগ্রাফি তখনকার সময়ের তুলনায় বেস্ট।
সিনেমায় অসাধারণ অভিনয় করেছিল জাফর ইকবাল,ববিতা,চম্পা।
আই.এম.ডি.বি : ৬.৮/১০
ব্যক্তিগত : ৭.৫/১০

🎬— ‘মনের মাঝে তুমি’
যে সিনেমার মাধ্যমে পূর্নিমা দামী তারকা বনে যান,সেটি মনের মাঝে তুমি।ভারত-বাংলাদেশের জয়েন্ট ভেনচারের এই একটা মাত্র কাজই আমার সবসময় এগিয়ে রাখতে ভাল লাগে।মিষ্টি প্রেম আর অসাধারণ মিউজিকের সমন্বয়ে তৈরী সিনেমাটি সেরা দশ রোমান্টিক বাংলা সিনেমায় জায়গা পাবে।এই সিনেমার পরই বাংলা সিনেমায় প্রতিষ্ঠিত হয়ে গিয়েছিল রিয়াজ-পূর্নিমা জুটিও।এছাড়াও একটি বিশেষ চরিত্রে ছিলেন জিশু সেনগুপ্ত।
আই.এম.ডি.বি : ৭.১/১০
ব্যক্তিগত : ৭.৫/১০

🎬— ‘বাঙ্গলা’
ভাষা আন্দোলনের প্রেক্ষাপটকে ঘিরে আরেকটি মাস্টারক্লাস সিনেমা।আহমেদ ছফার উপন্যাস ‘অঙ্কার’ অবলম্বনে তৈরী এই সিনেমায়,ভাষা এবং মুখের কথা যে কতটা দামী সেটা হাড়েহাড়ে টের পাওয়া যায়।আর এজন্যই আমাদের সাহসী যোদ্ধার স্বাধীনভাবে কথা বলতে যুদ্ধ করেছিলেন।সিনেমায় অসাধারণ একটা আপস এন্ড ডাউন কেমিস্ট্রি তৈরী করেছিল মাহফুজ আহমেদ ও শাবনূর।শাবনূর যে কি পরিমান ভাল অভিনেত্রী সেটা এই সিনেমা না দেখলে অনেকটাই অজানা রয়ে যাবে।শেষ দৃশ্যটার জন্য খুব খারাপ লেগেছিল।এত সুন্দর একটা গল্পের জন্য আহমেদ ছফাকে একটা বড়সড়ো ধন্যবাদ দিতেই হয়।
আই.এম.ডি.বি : পাওয়া যায়নি।
ব্যক্তিগত : ৮.৫/১০

🎬— ‘শ্রাবন মেঘের দিন’
পুরো চঞ্চলতায় ঘেরা একটা গল্প মেঘের দিনের মতো অন্ধকার হয়ে যায় শ্রাবন মেঘের দিন সিনেমায়।শাওনের করা প্রতিটি চরিত্রই ভীষন প্রিয়,তবে ‘কুসুম’ চরিত্রটার প্রতি আলাদা একটা টান আছে।অভিনয়ে কেউ কারও থেকে কম যাননি জাহিদ হাসান এবং মাহফুজ আহমেদ।যদিও এই গল্পের প্রধান চরিত্র ‘সাহানা’,যারা বইটি আগে পড়েছেন তারা সেটা বুজতে পেরেছেন আগেই। কিন্তু পর্দায় ত্রিভুজ প্রেমকে বেশি ফোকাসড করায় সিনেমায় চরিত্রটা আড়ালেই থেকে যায়।কিন্তু শাওনের থেকে এই সিনেমায় মুক্তি আরও বেশি ভাল অভিনয় করেছে।
আই.এম.ডি.বি : ৮.৫/১০
ব্যক্তিগত : ৮.৫/১০

🎬— ‘দুই দুয়ারী’
রহস্য মানবের দেখা মিলেছিল পর্দায় দুই দুয়ারী সিনেমার মাধ্যমে।একজন রহস্য মানব অদ্ভুতভাবে এক ভদ্রলোকের গাড়ির সামনে এসে পড়ে,এবং পরবর্তীতে তার বাড়িতে স্থান পায় আশ্রয় হিসাবে।রহস্য মানব,এক জোড়া তরুন-তরুনীর প্রেম দুটো বিষয় মিলিয়ে আমার কাছে দারুন ছিল।রিয়াজ,মাহফুজ বরাবরই সাহিত্য নির্ভর সিনেমায় ভাল।এই ছবিতেও তারা ভাল করেছে,আর সঙ্গে শাওন।
আই.এম.ডি.বি : ৭.৮/১০
ব্যক্তিগত : ৮/১০

🎬— ‘নয় নাম্বার বিপদ সংকেত’
হুমায়ূন আহমেদ রহস্য মানবের জন্ম দিয়ে সেটার নামও দিয়েছিল।কিন্তু রহস্য মানবীও জন্ম দিয়েছিল তবে সেভাবে নাম দেননি।এই সিনেমায় একটি বাড়িতে হাজির হয় এক অদ্ভুত তরুনী।যদিও এই সিনেমাকে হুমায়ূন স্যার নিজেই অর্থহীন বলেছিল।গল্পটা অর্থহীনই,তবে আমার দেখা এখন অবধি সেরা কমেডি ফিল্ম।সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন তানিয়া আহমেদ,দিতি,ফারুক আহমেদ,জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়,রহমত আলী।
আই.এম.ডি.বি : ৭/১০
ব্যক্তিগত : ৭.৫/১০

🎬— ‘না বলো না’
চিঠির প্রেমগুলা বরাবরই আমার কাছে একটু ফ্রেস লাগে।তার সাথে যদি থাকে অসাধারন গান আর টুইস্ট।অসাধারন একটা ভালবাসার গল্প বেশ জটিলতার সাথেই উঠে আসবে গল্পে।সীমলা এবং রিয়াজ দুজনকেই পারফেক্ট জুটি হিসাবে লাগছে।যদিও এই জুটিটা এরকম একটা সিনেমা করার পরও আর কোন সেরকম আলোচিত সিনেমার জন্ম দেয়নি।এছাড়াও ছিলেন ফেরদৌস,সোমা।
আই.এম.ডি.বি : ৬.৮/১০
ব্যক্তিগত : ৮/১০

টু বি কন্টিনিউ. . . . .

The post NO Spoiler ‘বাংলা মাস্টারক্লাস সিনেমা’ [পর্ব – ০২] appeared first on Trickbd.com.

Source:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *